test1
test body 1
Click Here
test2
test b 2
Click Here
Slide Heading
Lorem ipsum dolor sit amet, consectetur adipiscing elit. Ut elit tellus, luctus nec ullamcorper mattis, pulvinar dapibus leo.
Click Here
Previous
Next

টাঙ্গুয়ার হাওরে বাড়লো নৌকা ভাড়া, পর্যটকদের ক্ষোভ

মেঘালয় পাহাড়ের কোলঘেঁষা বিশাল জলরাশির টাঙ্গুয়ার হাওর। প্রাকৃতিক জীববৈচিত্র্য আঁধার টাঙ্গুয়ার হাওর এখন পর্যটকদের কাছে অতি প্রিয়। টাঙ্গুয়ার হাওর সুনামগঞ্জ শহর থেকে প্রায় ৪০ কিলোমিটার দূরে তাহিরপুর ও ধর্মপাশা উপজেলায়। হাওর ঘুরা ও ভ্রমণ করার প্রধান বাহন হলো নৌকা।

সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) রাত থেকে হঠাৎ করে টাঙ্গুয়ার হাওরের পর্যটকবাহী নৌকার ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়েছে। অভিযোগ উঠেছে, স্থানীয় তাহিরপুর উপজেলা প্রশাসনের সঙ্গে কোনো ধরনের কথা না বলেই নৌকা ভাড়া প্রায় দ্বিগুন করেছে তাহিরপুর ট্রলার মালিক সমিতি।

ট্রলার মালিক সমিতির ভাড়ার তালিকা সোমবার রাতে সুনামগঞ্জ সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের ফেসবুক আইডি থেকে প্রচার করার পর সেটি ভাইরাল হয়েছে।

জানা গেছে, নানা অভিযোগের প্রেক্ষিতে ২০১৮ সালে তৎকালীন তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিজেন ব্যানার্জি নৌকা ভাড়া নির্ধারণ করেছিলেন। ওই সময়ে তাহিরপুর বাজারের পাশে খেয়াঘাটের সামনে একটি সাইনবোর্ড ও তাহিরপুর থানার সামনে বৌলাই নদীর দুই তীরে দুইটি সাইনবোর্ড টানানো হয়েছিল। তবে কিছুদিন পরই খেয়াঘাটের সাইনবোর্ড ভেঙে ফেলা হয়।

সে সময় তালিকায় ভাড়া উল্লেখ ছিল, একদিন (নূন্যতম ৮ ঘন্টা হতে ১২ ঘন্টা) ২০ জন পর্যটক নিয়ে ৩ হাজার টাকা, ৩০ জন পর্যটক নিয়ে ৪ হাজার ৫০০ টাকা এবং ৪০ জন পর্যটক নিয়ে ৬ হাজার টাকা আদায় করা যাবে। দুইদিন একরাত ২০ জন পর্যটক নিয়ে ৬ হাজার টাকা, ৩০ জন পর্যটক নিয়ে ৯ হাজার, ৪০ জন পর্যটক নিয়ে ১২ হাজার টাকা, তিনদিন দুই রাত ২০ জন পর্যটক নিয়ে ৭ হাজার টাকা, ৩০ জন পর্যটক নিয়ে ১০ হাজার টাকা, ৪০ জন পর্যটক নিয়ে ১৩ হাজার টাকা করে নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছিল।

কিন্তু ৬ সেপ্টেম্বর (সোমবার) রাতে হঠাৎ করে তাহিরপুর ট্রলার মালিক সমিতি সভাপতি আবিকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মো. হুমায়ুন কবির স্বাক্ষরিত টাঙ্গুয়ার হাওর ও টেকেরঘাট যাওয়া পর্যটকবাহী নৌকার ভাড়ার নতুন তালিকা প্রকাশ করেন সুনামগঞ্জ সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার।

নতুন ভাড়ার তালিকায় জানানো হয়েছে, তাহিরপুর ঘাট হতে টাঙ্গুয়ার হাওরের ওয়াচ টাওয়ার হয়ে টেকেরঘাট হয়ে পুনরায় তাহিরপুর ঘাটে ছোট ইঞ্জিন নৌকা (লম্বা ৩০ থেকে ৩৫ হাত) ভাড়া ৪ হাজার টাকা। কাঠের বড় ইঞ্জিন নৌকা (লম্বা ৪০ থেকে ৪৫ হাত) ভাড়া ৮ হাজার টাকা। স্টিলের বড় ইঞ্জিন নৌকা (লম্বা ৪৫ থেকে ৫০ হাত) ভাড়া ১২ হাজার টাকা। কিন্তু প্রকাশিত নতুন তালিকায় সময় ও পর্যটকদের সুযোগ সুবিধার বিষয়গুলো উল্লেখ নেই।

সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার অক্ষয়নগরের বাসিন্দা আজিজুর রহমান আরটিভি নিউজকে বলেন, টাঙ্গুয়ার হাওরে যাওয়ার খুব ইচ্ছে ছিল। কিন্তু নতুন ভাড়ার তালিকা দেখে যাওয়ার ইচ্ছেটা কমে গেল। ভাবছি একটা নৌকা তৈরি করার পর টাঙ্গুয়ার হাওরে যাব।

সুনামগঞ্জ শহরতলীর ইব্রাহিমপুরের অনোয়ারুল হক আরটিভি নিউজকে বলেন, নৌকা ভাড়া তালিকা দেখে মনে হচ্ছে, নৌকার চালকরা যা চাইবে তাই দিতে হবে। সোমবার সবচেয়ে বড় নৌকা নিয়ে ১০ হাজার টাকা ভাড়া দিয়ে সুনামগঞ্জ শহর থেকে টাঙ্গুয়ার হাওর ও টেকেরঘাট ঘুরে এসেছি। কিন্তু মঙ্গলবার সকালে দেখি তাহিরপুর থেকেই ১২ হাজার টাকা ভাড়া করা হয়েছে।

তাহিরপুর ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি আবিকুল ইসলাম আরটিভি নিউজকে জানিয়েছেন, ভাড়া খুব বেশি হয়নি। আমাদের লোকজন আরও বেশি ভাড়া দাবি করছে। ভাড়ার যে তালিকাটা প্রকাশ করা হয়েছে সেটা সুনামগঞ্জের সার্কেল এসপি থানায় বসে করা হয়েছে।

সুনামগঞ্জ সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জয়নাল আবেদীনের সাথে কথা বলতে চাইলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। ক্ষুদে বার্তা জানিয়েছে, তিনি একটা সভায় আছেন।

অবশ্য সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান আরটিভি নিউজকে জানিয়েছেন, হাওরের নৌকা ভাড়ার তালিকা করার বিষয়টি আমাদের নয়। বিষয়টির খোঁজ খবর নেওয়া হবে।

Leave a Comment