এই জয়ে আত্মবিশ্বাস বাড়বে: সাকিব

অস্ট্রেলিয়া সিরিজের শেষ থেকেই যেন নিউজিল্যান্ড সিরিজের শুরুটা করলেন সাকিব আল হাসান। প্রথমে বল হাতে ১০ রানে দুই উইকেট নেওয়ার পর, ব্যাটিংয়ে খেলেছেন ২৫ রানের দায়িত্বশীল ইনিংস। তার অলরাউন্ড নৈপুণ্যে ১১ বারের দেখায় টি-টোয়েন্টিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম জয় পেল বাংলাদেশ। ৭ উইকেটের এই জয় পাঁচ ম্যাচ সিরিজের বাকি চার ম্যাচের জন্য বাড়তি আত্মবিশ্বাস জোগাবে বলে মনে করছেন সাকিব।

ম্যাচ সেরার পুরষ্কার নিতে এসে বিশ্বের অন্যতম সেরা এই অলরাউন্ডার বলেন, ‘সিরিজের প্রথম ম্যাচ জিতে ভালো লাগছে, যেহেতু এর আগে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে কখনো জিতিনি আমরা। এই জয় বাকি ম্যাচগুলোর জন্য আমাদের আত্মবিশ্বাস আরও বাড়িয়ে দেবে। অস্ট্রেলিয়া সিরিজ জুড়েই আমরা খুব ভালো বোলিং করেছি এবং নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেও তা বজায় রাখছি।’এই জয়ে আত্মবিশ্বাস বাড়বে: সাকিব

সাকিবের মুখে বোলিংয়ের জন্য যেমন ছিল প্রশংসার ফুলঝুড়ি, তেমনি ব্যাটিং নিয়ে ছিল অসন্তুষ্টি। কিউইদের বেধে দেওয়া ৬১ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ৭ রানেই দুই ওপেনারকে হারিয়ে বসে বাংলাদেশ। তখন খুব ভালো করেই চোখরাঙানি দিচ্ছিল বিপদ। কিন্তু মুশফিকুর রহিমকে নিয়ে তা সামাল দেন সাকিব। কন্ডিশন সহজ না হলেও সাকিব জানিয়ে রাখলেন ব্যাটিংয়ে ভালো করাটা জরুরি।

সাকিব বলেন, ‘আমাদের ব্যাটিং এখন পর্যন্ত আশানুরূপ হয়নি, তবে এই কন্ডিশনে ব্যাটিং করা সহজ কাজ নয়। তাই ভালো সংগ্রহ দাঁড় করাতে হলে আমাদের খুবই ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে।’

বোলারদের নিয়ে প্রশংসার কমতি নেই অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদেরও। সাকিব ছাড়া মুস্তাফিজুর রহমান ৩টি, নাসুম আহমেদ ২টি, সাইফউদ্দিন ২টি ও মেহেদী হাসান নেন ১টি। তাদের ভালো বোলিং করার পেছনে কারণ হিসেবে মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘আমি মনে করি আসল জিনিস হলো বোলাররা ক্ষুধার্ত ছিল এবং নিয়ন্ত্রিত বোলিং করে গেছে; তারা খুব বেশি কিছু করার চেষ্টা করেনি এবং কন্ডিশনের ব্যবহার করে খুব ভালো বোলিং করেছে।’নিউজিল্যান্ডকে গুঁড়িয়ে ইতিহাস গড়লো বাংলাদেশ

মিরপুরের স্লো ও স্পিন উইকেটে প্রতিবেশী দেশ অস্ট্রেলিয়ার নাজেহাল অবস্থা খুব ভালোভাবেই দেখেছিল নিউজিল্যান্ড। সেজন্য দেশ থেকে প্রস্তুতিও নিয়ে আসে সেরকমভাবে। কিন্তু প্রথম ম্যাচে এসে তার ছিটেফোটাও দেখা গেল না। তাই দ্বিতীয় বার পড়তে হয় নিজেদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন সংগ্রহ ৬০ রানের লজ্জায়।

লজ্জা ভুলে দ্রুতই এই উইকেটে রান করার পথ খুঁজে বের করতে চান কিউই অধিনায়ক টম ল্যাথাম। তিনি বলেন, ‘আশা করি আজ যা হয়েছে তা থেকে শিক্ষা নিবো। এখানে ভালো স্কোর কত, সে ব্যাপারে আমাদের কাজ করতে হবে এবং সেই স্কোর করার পথ খুঁজতে হবে। ছেলেরা আজকের ম্যাচ থেকে অনেক কিছু শিখবে। এই কন্ডিশনে খেলা খুব কঠিন এবং আশা করি, আমরা পরবর্তীতে ভালো করতে পারবো।’ইত্তেফাক

Leave a Comment