রাজধানীর মিরপুরে গ্যাস পাইপ লাইন বিস্ফোরণে শিশুসহ ৭ জন দগ্ধ

পল্লবী থানাধীন মিরপুর-১১ নম্বরে একটি ৬তলা ভবনের নিচতলায় গ্যাস লাইন লিকেজ মেরামতের সময় আগুন জ্বালিয়ে চুলা পরীক্ষা করার সময় হঠাৎ বিস্ফোরণে শিশু, নারী, মিস্ত্রি ও ভাড়াটিয়াসহ ৭ জন দগ্ধ হয়েছে। দগ্ধদেরকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে ‌।

দগ্ধদের হাসপাতালে নিয়ে আসা বাড়ির মালিক রফিকুল ইসলাম জানান, বুধবার দিবাগত রাত সোয় ১১টায় মিরপুর-১১ নম্বরের সেক্টর-১১, রোড-১১, ব্লক-সি ঢাকা’র ৬তলা ভবনের নিচতলায় এ দুর্ঘটনাটি ঘটে। আমাদের নিজ বাড়িতে এক সপ্তাহ যাবৎ গ্যাস ঠিকমত আসছিল না। ৩ দিন আগেও গ্যাস লাইন মেরামত করা হয়। আজকেও গ্যাস লাইনের সমস্যা দেখা দিলে মিস্তিরি গ্যাস লাইন ঠিক করে পরীক্ষামূলক চুলায় আগুন ধরিয়ে পরীক্ষা করার সময় হঠাৎ বিস্ফোরণে আগুন জ্বলে ৭ জন দগ্ধ হয়। পরে তাদেরকে রাতেই শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে নিয়ে যাওয়া হয় এবং ভর্তি করা হয়।

তিনি আরো বলেন,কর্তব্যরত চিকিৎসক জানিয়েছেন দগ্ধদের সবারই অবস্থা আশঙ্কাজনক।

দগ্ধরা হলেন, হাসপাতালে নিয়ে আসা রফিকের মা গৃহকর্তি রোওশনারা বেগম (৭০) ও রফিকের ছোট মা রিনা বেগম (৫০) দগ্ধ রিনা বেগমের ছেলে শফিকুল ইসলাম (৩৫), মিস্ত্রি সুমন (৪০), নিচতলার ভাড়াটিয়া রেনু বেগম (৩৫), ভবনের পাশেই পথচারী শিশু নওশীন (৫) ও শিশুর মা নাজনীন (২৫)।

ঢামেক পুলিশ ক্যাম্প পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া জানান, দগ্ধদের সবারই অবস্থা বর্তমানে আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক। বর্তমানে তারা গুরুতর আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছে।

Leave a Comment